৮ প্রকার মহিলার সঙ্গে ভুলেও শারীরিক সম্পর্ক করবেন না

অবিবাহিত নারী : বলপূর্বক হোক, কিংবা সংশ্লিষ্ট নারীর সম্মতি সহকারে, কোনো অবিবাহিত নারীর সঙ্গেই সঙ্গম উচিত নয় বলে মনে করছে শাস্ত্র।

বিধবা : কোনো বিধবার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ককে পাপ বলে উল্লেখ করছে শাস্ত্র। এই ধরনের পাপের পরিণতি হতে পারে ভয়াবহ।

বন্ধুর স্ত্রী : কোনো বন্ধুর স্ত্রীর সঙ্গে যৌন সম্পর্কের ফলে নারী ও পুরুষ- দুজনই মহাপাপে নিমজ্জিত হয়। নিয়তির হাতে এর জন্য কঠিন শাস্তি ভোগ করতে হয় দুজনকেই।

শত্রুর স্ত্রী : শাস্ত্রে শত্রুর স্ত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কেও নিষেধ স্থাপন করা হচ্ছে। শত্রুর স্ত্রীর সঙ্গে যৌন সম্পর্কেও মহাপাপ হয় বলে মনে করছে শাস্ত্র।

শিষ্যর স্ত্রী : শাস্ত্রের মতে, কোনো শিষ্য অথবা ছাত্রের স্ত্রীর সঙ্গে কখনোই কোনো পুরুষের যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হওয়া উচিত নয়।

পরিবারের অন্তর্ভুক্ত কোনো নারী : সরাসরি রক্তের সম্পর্ক রয়েছে, এমন নারীর সঙ্গে পুরুষদের শারীরিক সম্পর্কে কড়া নিষেধ স্থাপন করেছে প্রাচীন হিন্দু শাস্ত্র।

বয়সে বড় কোনো নারী : নিজের চেয়ে বেশি বয়সী কোনো নারীর সঙ্গে কোনো পুরুষের শারীরিক সম্পর্ক না হওয়াই উচিত বলে মনে করেছে প্রাচীন শাস্ত্রসমূহ।

যৌনকর্মী : অর্থের জন্য নিজের শরীর বিক্রি করছেন যে নারী, তার সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক সম্পূর্ণ অনুচিত বলেই মনে করেছে প্রাচীন শাস্ত্র।

Pronoy Deb Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *