একেই বলে মানবিকতা, 'শত্রু' মাওবাদীকে রক্ত দিয়ে প্রাণে বাঁচাচ্ছেন জওয়ান! | পড়ুন বিস্তারিত ...

একেই বলে মানবিকতা, ‘শত্রু’ মাওবাদীকে রক্ত দিয়ে প্রাণে বাঁচাচ্ছেন জওয়ান!

ঝাড়খণ্ডের একটি ঘটনা যেন প্রমাণ করে দিচ্ছে, দায়িত্ব যেমন থাকে, তার সঙ্গে থাকে মানবিকতাও।
কোবরা বাহিনীর সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে গুরুতর আহত এক মাওবাদীকে নিজের রক্ত দিয়ে সুস্থ করে তোলার আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছেন সিআরপিএফ-এর ১৩৩ নম্বর ব্যাটেলিয়ানের কনস্টেবল রাজকমল।
ওই মাওবাদীকে আহত অবস্থায় ফেলে পালিয়ে যান সহযোগীরা।
যাঁর সঙ্গে গুলির যুদ্ধ, সেই ‘শত্রুর’ প্রাণ বাঁচানোর জন্য নিজের রক্ত দিতেও এক মুহুর্ত ভাবেননি তিনি। ঝাড়খণ্ডের একটি ঘটনা যেন প্রমাণ করে দিচ্ছে, দায়িত্ব যেমন থাকে, তার সঙ্গে থাকে মানবিকতাও।

কোবরা বাহিনীর সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে গুরুতর আহত এক মাওবাদীকে নিজের রক্ত দিয়ে সুস্থ করে তোলার আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছেন সিআরপিএফ-এর ১৩৩ নম্বর ব্যাটেলিয়ানের কনস্টেবল রাজকমল।

এই ঘটনার পর আরও একবার প্রমাণ হল, সীমান্তে থাকা বা মাওবাদীদের সঙ্গে গভীর জঙ্গলে লড়াইতে নামা জওয়ানদের বাহ্যিক কাঠিণ্য যতই থাকুক, তাঁদের অনেকেরই ভেতরে রয়েছে ভীষণ দরদী একটা মন। রাজকুমারের ঘটনা সেই কথাটিকেই যেন প্রতিষ্ঠা করে গেল।

সিআরপিএফ সূত্রে জানা গিয়েছে, কোবরা বাহিনীর সঙ্গে গুলির লড়াইতে গুরুতর জখম হন ওই মাওবাদী। তাঁর সহযোগীরাও তাঁকে ফেলে পালিয়ে যান। কিন্তু সিআরপিএফ জওয়ানরা তাঁকে তুলে এনে ভর্তি করেন রাঁচির আরআইএমএস হাসপাতালে। সেখানেই রক্তের দরকার পড়ে ওই মাওবাদীর। বিন্দুমাত্র না ভেবে এগিয়ে আসেন রাজকুমার। রক্ত দিয়ে ‘শত্রুপক্ষের’ প্রাণ বাঁচানোর এই প্রচেষ্টায় ইতিমধ্যেই রাজকুমারকে নিয়ে প্রশংসা করছেন সকলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*