পাবনায় চোরাই মটরসাইকেলসহ পিতা-পূত্র আটক | পড়ুন বিস্তারিত ...

পাবনায় চোরাই মটরসাইকেলসহ পিতা-পূত্র আটক

আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি:পাবনার শালগাড়িয়া স্কয়ার রোড থেকে চোরাই হোন্ডাসহ পিতা-পূত্রকে আটক করেছে সাঁথিয়া থানা পুলিশ। শুক্রবার সকালে ওই এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলো- পাবনার শালগাড়িয়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে ইসমাইল হোসেন (৬০) ও তার ছেলে ইমরান হোসেন (২৮)।

জানা যায়, সাঁথিয়ার বোয়াইমারী গ্রামের জাহিদুল ইসলাম কুতবের বাসার গেটের তালা ভেঙ্গে সঙ্গবদ্ধ চোরেরা ঘরে প্রবেশ করে একটি হোন্ডাসহ মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় সাঁথিয়া থানা পুলিশ উপজেলার ছেচানিয়া গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে আঃ বাতেনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের পরে শুক্রবার সকালে শালগাড়িয়া স্কয়ার রোড থেকে হোন্ডাসহ পিতা-পূত্রকে আটক করে।

সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম জানান, বাতেন পেশাদার চোরের সক্রিয়া সদস্য। তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে।

মাদারীপুর:জমি জমার বিরোধকে কেন্দ্র করে বৃদ্ধ ও বৃদ্ধ (স্বামী- স্ত্রী)কে বসতঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করায় পুলিশ ও ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বারকে জানানোর পর কেউ তাদের পাশে এসে না দাঁড়নোর কারণে শুক্রবার সকালে এলাকাবাসী ও আত্মীয়স্বজনরা বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ী ইউনিয়নের নটাখোলা গ্রামের কেশবের নিজ বাড়িতেই এই সমাবেশ করেন আত্মীয়স্বজনসহ এলাকাবাসী।

বিক্ষোভ সমাবেশে জানায়, বৃহস্পতিবার (৪ অক্টোবর) দিবাগত রাত ২টার দিকে দিকে কেশব রায়ের ঘরে আগুন জ্বলে উঠলে তাপ ও আলোতে কেশব রায় ও তার স্ত্রীর ঘুম ভেঙ্গ যায়। উঠে দেখে ঘরের বারান্দায় আগুন ছড়িয়ে যাচ্ছে। দুইজনেই বৃদ্ধ হওয়ায় তাড়াহুড়া করতে গিয়ে তাদের শরিরে আগুনে জ্বলসে যায়।

ঘর থেকে বের হতে গিয়েও দেখে তাদের একটি মাত্র দরজা তাও বাহির থেকে আটকানো রয়েছে, পরে পিছনের টিনের বেড়া ভেঙ্গে বাহিরে আসে এসে চিৎকার দিলে আশপাশে লোকজন আসার আগেই দুবৃত্তরা পালিয়ে যায়। তবে বৃদ্ধ ও বৃদ্ধারা রাতের আধারে চিনতে না পারলেও এলাকাবাসী অনেকেই দেখেছে যারা আগুন দিয়েছে তারা মটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে। আর যাদের দেখেছে তাদের মধ্যে নিতিশ রায় ছিল বলে জানা যায়।

উল্লেখ্য, কেশব বৃদ্ধ ও তার স্ত্রী বৃদ্ধার ছেলে সন্তান না থাকায় তার এক ভাতিজা নিতিশ রায় জমি নেয়ার জন্য অনেকবার নানাভাবে চেস্টা করেছে। তাছাড়া বৃদ্ধ ও বৃদ্ধার নামে নারী নির্যাতন, ডাকাতি মামলাসহ কয়েকটি মিথ্যা মামলা দিয়েছে নিতিশ ও বন্যা নামে দুইজন। সেই মামলায় জামিনে তারা আসলে আবারও তাদের হত্যার চেস্টা করেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*