সর্বশক্তি নিয়ে গাজায় হামলার হুঁশিয়ারি ইসরায়েলের

গাজা থেকে হামলা বন্ধ না হলে ইসরায়েল সরকার সর্বশক্তি নিয়ে মাঠে নামবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু। বুধবার গাজা থেকে ইসরায়েলি শহরে রকেট হামলার জবাবে গাজায় ইসরায়েলের বিমান হামলার পর সীমান্ত এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে এ হুমকি দেন তিনি।

তিনি বলেন, ইসরায়েলের বিরুদ্ধে এ হামলাকে খুব গুরুত্ব সহকারে দেখছি। আমি এ সপ্তাহের মন্ত্রিসভার বৈঠকে বলেছি এখনও বলছি, গাজাকে এসব বন্ধ করতে হবে। না হলে এর জবাব ভয়াবহভাবে পাবে তারা। বুধবার হামাসের অবস্থান লক্ষ্য করে আকস্মিক বিমান হামলা চালায় ইসরায়েলি সেনাবাহিনী।

হামলার পরপরই তিনটি আবাসিক ভবন পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যাওয়ার পাশাপাশি বেশ কয়েকজন হতাহত হয়। হামাসের অবস্থান লক্ষ্য করে বিমান হামলার দাবি করলেও হতাহতরা সবাই বেসামরিক নাগরিক বলে জানিয়েছে গাজা কর্তৃপক্ষ। আর ইসরায়েলের দাবি সীমান্তবর্তী একটি অঞ্চলে গাজা থেকে চালানো হামলার জবাবে এ হামলা চালায় ইসরায়েল।

পাল্টাপাল্টি হামলায় সৃষ্ট চলমান পরিস্থিতিতে মিশরের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল বুধবার হামাসের সঙ্গে বৈঠক করে। হামাসের পক্ষ থেকে বলা হয় বুধবারের হামলার বিষয়ে মিশর সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে।

হামাস নেতা ফাউজি বারহুম বলেন, মিশরীয় সরকারের চেষ্টাকে অবশ্যই আমরা স্বাগত জানাই। গাজায় ইসরায়েলি দখলদারিত্ব বন্ধে সব পক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন তারা। আমাদের জনগণের ওপর যে জুলুম হচ্ছে তা বন্ধে মিশরের সবচেষ্টা সফল হোক সেটিই আমাদের প্রত্যাশা।

ইসরায়েলের চালানো হামলা ফিলিস্তিনিদের আরও বেশি ক্ষুব্ধ করেছে। ইতোমধ্যে ভূমি দিবসকে কেন্দ্র করে গাজার ইসরায়েল সীমান্তে গেল ৩০ শে মার্চ থেকে চলে আসা বিক্ষোভে ইহুদি সেনাদের গুলিতে দেড়শ’রও বেশি ফিলিস্তিনি প্রাণ হারিয়েছে। তাদের বিক্ষোভ দমনে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলির পাশাপাশি গাজায় জ্বালানি তেল সরবরাহ বন্ধ করে দেয় ইসরায়েল।

এতেও বিক্ষোভ বন্ধ না হলে এর পেছনে হামাসের ইন্ধন রয়েছে দাবি করে অবরুদ্ধ ওই অঞ্চলটিতে সামরিক অভিযানের হুঁশিয়ারি দেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু। তার সে-হুমকির দুদিন পরই গাজায় বিমান হামলা চালায় ইসরায়েল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*