‘বাচ্চুকে আমিই বিয়ে করিয়েছি, তার পছন্দের মেয়েকেই’

বাংলাদেশের ব্যান্ড সংগীতের কিংবদন্তি আইয়ুব বাচ্চু। রুপালী গিটার ফেলে সবাইকে কাঁদিয়ে গত বৃহস্পতিবার (১৮ অক্টোবর) চলে গেলেন না ফেরার দেশে। মোঃ আব্দুল আলীম লোহানী (৬৫)। তিনি আইয়ুব বাচ্চুর ছোট মামা। চট্টগ্রাম শহরের পূর্ব মাদারবাড়ী বালুরমাঠে অবস্থিত নিজ বাসায় আমাদের বিডি টোয়েন্টিফোর লাইভ ডটকমের কিশোরগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি মোঃ এস. হোসেন আকাশ এর সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে কান্না জড়িতকণ্ঠে বলেন, বাচ্চু ছোট থেকেই আমাদের কাছে বড় হয়েছে। তার স্মৃতি কখনো ভোলার নয়।

তিনি বলেন, ‘বাচ্চু সব সময় আমাদের বাসায় আসতো। এই তো কয়েকদিন আগেই আমাদের বাসা থেকে এসে ঘুরে গেল। যখনিই চট্টগ্রামে আসতো তখনিই আমার সাথে দেখা করতো। সময় পেলেই আমার বাসায় আসতো। এখন তো আর কোনোদিন আসবে না। আমাকে ফোন করে বলবে না যে মামা আমি দেশের বাইরে চলে যাচ্ছি। এসে আবার কথা হবে’।

তিনি আরও বলেন, ‘বাচ্চু যে সারা বাংলাদেশের একজন স্টার তা সে আমার এখানে আসলে কখনোই ভাবে নাই। আমার বাসাই এসেই আমার পায়ে ধরে সালাম করতো। কখনো সে নিজেকে বড় ভাবে নাই। আর সে আমার কাছে ছোট্ট বাচ্চুই রয়ে গেছে। আমি এখনো ভাবতে পারছি না যে আমাদের ছোট্ট বাচ্চুটা আমাদের মাঝে নেই’।

তিনি বলেন, ‘এই বাচ্চুকে আমি বিয়ে করিয়েছি ১৯৯১ সনে। তার পছন্দের মেয়েকেই বিয়ে করিয়েছি। তার শুরুর বাড়ি বরিশালে। বিয়ে করানোর পর সে তার পরিবারকে নিয়ে ঢাকা থাকতেন। ভালোই ছিল তাদের জীবন। আজ সে নেই। তার স্ত্রী, ১ ছেলে ও ১ মেয়ে এখন এতিম হয়ে গেল’।

বাচ্চুর মামা আলীম লোহানী বলেন, ‘আমার বাবা মানে বাচ্চুর নানা মরহুম হাজ্বী আব্দুল লতিফ ও নানু মরহুমা আম্বিয়া খাতুন বাচ্চুকে সবচেয়ে বেশি আদর করেছেন। আর তার জননী বাচ্চুর মা আমার বোন সেও অনেক আদর করেছে’। তিনি আরও বলেন, ‘বাচ্চুর মা নূরজাহান বেগম ২০০৪ সালের ২ ডিসেম্বর মারা যায়। তার মাকেও আমি দাফন করেছি। আর এখন বাচ্চুকেও আমার হাতেই দাফন করতে হচ্ছে। এই কথা ভাবতেই আমার অবাক লাগছে। আজ আমার খুব কষ্ট হচ্ছে। আমি সবার কাছে আমার ভাগ্নে বাচ্চুর জন্য দোয়া চাই’।

গত তিন দিন ধরে তার মরদেহ ঢাকায় রাখা হয়েছে। আজ শনিবার তার মরদেহ আকাশ পথে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে নেওয়া হবে। প্রথমে সড়ক পথে নেওয়ার কথা থাকলেও পরে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করা হয়। আইয়ুব বাচ্চুর ব্যান্ড এলআরবির ব্যবস্থাপক শামীম আহমেদ জানিয়েছেন, শনিবার সকাল ১০টায় ইউএস বাংলার উড়োজাহাজে করে মরদেহ চট্টগ্রামে নেওয়া হবে।

ইউএস বাংলার পৃষ্ঠপোষকতায় আইয়ুব বাচ্চুর স্বজনসহ ২০ জনের দল একই উড়োজাহাজে চট্টগ্রামে যাবেন। আজ শনিবার (২০ অক্টোবর) চট্টগ্রাম শহরের পূর্ব মাদারবাড়ী এলাকার পোর্ট সোসাইটি বালুর মাঠে সকাল সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর ২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত আইয়ুব বাচ্চুর মরদেহের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর জন্য রাখা হবে। তারপরই বিকাল ৪টায় দিকে জামিয়াতুল ফালাহ বিশ্ব মসজিদে নামাজের জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। তারপর চৈতন্য গলির বাইশ মহল্লা কবরস্থানে মায়ের কবরের পাশে শায়িত করা হবে জনপ্রিয় এই সংগীত শিল্পীকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*